Sample Page Title

Must read


৭৩৪৯টির মধ্যে একমাত্র অনামিকা স্টেশন

৭৩৪৯টির মধ্যে একমাত্র অনামিকা স্টেশন

২০১৭ সালের ৩১ মার্চ পর্যন্ত দেশে মোট ৭৩৪৯টি রেলওয়ে স্টেশন ছিল। তার মধ্যে একটি রেলস্টেশন নামহীন অর্থাৎ অনামিকা। এটা জেনেই সত্যিই বিস্মিত হতে হয়। মানুষও হতবাক হন তা দেখে। আপনিও নিশ্চয়ই ভাবছেন কেন এমটা হল। কেনই বা ওই স্টেশনের নাম দেওয়া হল না। আর সেই রেলস্টেশনটি দেশরে কোন রাজ্যে অবস্থিত।

কোন রাজ্যে অবস্থিত নামহীন স্টেশনটি

কোন রাজ্যে অবস্থিত নামহীন স্টেশনটি

নামহীন ওই রেলওয়ে স্টেশনটি অবস্থিত পশ্চিমবঙ্গে। পশ্চিমবঙ্গে বর্ধমান জেলায় অবস্থিত নামহীন স্টেশনটি। বর্ধমান জেলা সদর থেকে প্রায় ৩৫ কিলোমিটার দূরে রায়না নামে একটি গ্রামে অবস্থিত। ভারতীয় রেল ২০০৮ সালে এই গ্রামে একটি রেলওয়ে স্টেশন তৈরি করে। ওই স্টেশনের নামকরণ করা হয়নি আজও। এটি দেশের একমাত্র রেলওয়ে স্টেশন যার নামকরণ করা হয়নি।

কী কারণে স্টেশনের নাম দেওয়া হয়নি

কী কারণে স্টেশনের নাম দেওয়া হয়নি

আপনি নিশ্চয়ই ভাবছেন যে, ভারতীয় রেল এই স্টেশনের নাম রাখল না কেন? কোন এই স্টেশনটির নামকরণ করা হল না? কারণ স্টেশনটি নিয়ে রায়না এবং রায়নগর গ্রামের মধ্যে মতপার্থক্য রয়েছে। এ কারণে নামকরণ করা যায়নি। আসলে ২০০৮ সালের আগে রায়নগর রেলওয়ে স্টেশন নামে একটি স্টেশন ছিল।

রায়নদর নাম নিয়ে আপত্তি গ্রামবাসীদের

রায়নদর নাম নিয়ে আপত্তি গ্রামবাসীদের

বর্তমান স্টেশন থেকে ২০০ মিটার দূরে একটি ন্যারোগেজ রুট ছিল। একে বলা হত বাঁকুড়া-দামোদর রেলওয়ে রুট। এরপর সেখানে ব্রডগেজ চালু হলে রায়না গ্রামের কাছে একটি নতুন রেলস্টেশন তৈরি করা হয়। তারপর এটি মাসাগ্রামের কাছে হাওড়া-বর্ধমান রুটের সঙ্গে যুক্ত হয়েছিল। স্টেশনের নামকরণ শুরু হলে রায়না গ্রামের লোকেরা এর নাম রায়নগর না করার কথা বলে।

গ্রামবাসীর বাধায় না হল রায়না, না রায়নগর

গ্রামবাসীর বাধায় না হল রায়না, না রায়নগর

গ্রামবাসীরা জোর দিয়েছিল স্টেশনটি রায়না নামে করতে। স্টেশনটি যেহেতু রায়না গ্রামে, তাই স্টেশনটির নামও হওয়া উচিত ‘রায়না স্টেশন’। এ কারণে আজ পর্যন্ত স্টেশনটির নামকরণ করা যায়নি। বাঁকুড়া-মাসাগ্রাম নামে একটি ট্রেন স্টেশনে দিনে ৬ বার থামে। যে কোন যাত্রী ট্রেন ধরতে এই স্টেশনে আসেন, নামহীন স্টেশন দেখে অবাক হন।

অ-নামী স্টেশনকে যে নামে চেনেন যাত্রীরা

অ-নামী স্টেশনকে যে নামে চেনেন যাত্রীরা

বিস্মিত যাত্রীরা প্রথম গেলেই স্টেশনের প্ল্যাটফর্মে নামহীন বোর্ডের দিকে তাকিয়ে থাকেন। সেখানে কোনো নাম লেখা নেই। এই গ্রামে আসা যাত্রীরা প্ল্যাটফর্মে খালি বোর্ড দেখে বুঝতে পারে যে তাদের স্টেশন এসেছে এবং তারা নেমে যায়। টিকিট কাটার সময়ও যাত্রীরা বলেন রায়না গ্রামের নামহীন স্টেশনের টিকিট দিতে। বর্ধমান-মাসাগ্রামের মধ্যবর্তী সমস্ত স্টেশনের টিকিট কাউন্টারে সবাই ওই অ-নামী স্টেশনকে বেশ চেনেন!



Source link

close
Trendy Voice

Hi!
It’s nice to meet you.

Sign up to receive awesome content in your inbox, every week.

We don’t spam! Read our privacy policy for more info.

- Advertisement -spot_img

More articles

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisement -spot_img

Latest article